ঢাকা ১০:০০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হাতিয়ার এমপি মোহাম্মদ আলীর ছেলে আশিক আলি অমি, অন্যরাও সরে দাঁড়ালেন না। জেলা আওয়ামিলীগের সংবাদ সম্মেলন সার্বজনীন পহেলা বৈশাখ বা পয়েলা বৈশাখ – লেখকঃ  আসসাদুজ্জামান আরমান  (প্রকাশক ও সম্পাদক) মুরগির ওজন বৃদ্ধির জন্য খাওয়ানো হচ্ছে ইটের কণা ডিজিটাল মিটারের অফলাইন এবং অনলাইন সেবাতে বিভ্রান্ত গ্রাহক নোয়াখালীতে মোটরসাইকেল চোর চক্রের ০২ সদস্য গ্রেফতার সহ ০৭ টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার নোয়াখালী শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উৎযাপন স্বাধীনতা দিবসে বীর শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন নোয়াখালী পৌরসভায় কিশোরগ্যাং এর উৎপাত বাড়ছে নোয়াখালীর সদর উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে এক ব্যক্তি নিহত ও একই পরিবারের তিনজন দগ্ধ

এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে হাইব্রিড মডেলে

News Desk
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৬:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩ ৯১ বার পড়া হয়েছে

এশিয়া কাপ হলো একদিনের আন্তর্জাতিকে পুরুষ ও নারীদের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। এটি চালু হয় ১৯৮৩ সালে যখন এশীয় দেশগুলোর মধ্যে সুনাম প্রচার করার জন্য এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করা হয়। এটি সাধারণত প্রতি দুই বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়।

দীর্ঘ টালবাহানার পরে এশিয়া কাপ ২০২৩ এ পিসিবির হাতে আয়োজনের দায়িত্ব থাকলেও এবছর এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে হাইব্রিড মডেলে। টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায়। পাকিস্তানে খেলা হবে মোটে ৪টি ম্যাচ। টুর্নামেন্টের বাকি সব ম্যাচ আয়োজিত হবে শ্রীলঙ্কায়। কাপের সব ম্যাচ শুরু হবে ভারতীয় সময় অনুযায়ী বেলা ৩টে থেকে।যার অর্থ, ম্যাচ গড়াবে প্রায় মাঝরাত পর্যন্ত। আসন্ন ওয়ান ডে বিশ্বকাপের প্রস্তুতির কথা মাথায় রেখেই এবছর এশিয়া কাপ খেলা হবে ৫০ ওভারের ফর্ম্যাটে।৩০ অগস্ট শুরু হবে এশিয়া কাপ ২০২৩ এবং টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ ১৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে । ১৮ সেপ্টেম্বর ফাইনালের রিজার্ভ ডে নির্ধারিত রয়েছে। অর্থাৎ, ১৭ তারিখ ফাইনাল ভেস্তে গেলে ম্যাচটি পুনরায় আয়োজিত হবে পরের দিন ১৮ সেপ্টেম্বর।মোট ৬টি দেশ এবার লড়াই চালাবে এশিয়া কাপে। এশিয়ার ৫টি দেশ ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সঙ্গে নেপাল অংশ নেবে ২০২৩ এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টে।

গ্রুপ এ: পাকিস্তান , ভারত ও নেপাল।
গ্রুপ বি: শ্রীলঙ্কা , বাংলাদেশ  ও আফগানিস্তান।

প্রাথমিকভাবে সুপার ফোরের সূচি ঘোষণা করা হয়েছে পাকিস্তান ও ভারতকে যথাক্রমে এ-১ ও এ-২ দল হিসেবে বাছাই করা হয়েছে। শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশকে বি-১ ও বি-২ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যদি নেপাল সুপার ফোরে ওঠে, তবে ভারত অথবা পাকিস্তানের মধ্যে যে দল ছিটকে যাবে, তাদের জায়গা নেবে নেপাল। অর্থাৎ, পাকিস্তান ছিটকে গেলে সুপার ফোরে নেপাল হবে এ-১ দল। ভারত ছিটকে গেলে সুপার ফোরে নেপাল হবে এ-২ দল।একই নিয়ম প্রযোজ্য বি-গ্রুপের ক্ষেত্রেও।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে হাইব্রিড মডেলে

আপডেট সময় : ০৩:৫৬:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩

এশিয়া কাপ হলো একদিনের আন্তর্জাতিকে পুরুষ ও নারীদের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। এটি চালু হয় ১৯৮৩ সালে যখন এশীয় দেশগুলোর মধ্যে সুনাম প্রচার করার জন্য এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করা হয়। এটি সাধারণত প্রতি দুই বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়।

দীর্ঘ টালবাহানার পরে এশিয়া কাপ ২০২৩ এ পিসিবির হাতে আয়োজনের দায়িত্ব থাকলেও এবছর এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে হাইব্রিড মডেলে। টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায়। পাকিস্তানে খেলা হবে মোটে ৪টি ম্যাচ। টুর্নামেন্টের বাকি সব ম্যাচ আয়োজিত হবে শ্রীলঙ্কায়। কাপের সব ম্যাচ শুরু হবে ভারতীয় সময় অনুযায়ী বেলা ৩টে থেকে।যার অর্থ, ম্যাচ গড়াবে প্রায় মাঝরাত পর্যন্ত। আসন্ন ওয়ান ডে বিশ্বকাপের প্রস্তুতির কথা মাথায় রেখেই এবছর এশিয়া কাপ খেলা হবে ৫০ ওভারের ফর্ম্যাটে।৩০ অগস্ট শুরু হবে এশিয়া কাপ ২০২৩ এবং টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ ১৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে । ১৮ সেপ্টেম্বর ফাইনালের রিজার্ভ ডে নির্ধারিত রয়েছে। অর্থাৎ, ১৭ তারিখ ফাইনাল ভেস্তে গেলে ম্যাচটি পুনরায় আয়োজিত হবে পরের দিন ১৮ সেপ্টেম্বর।মোট ৬টি দেশ এবার লড়াই চালাবে এশিয়া কাপে। এশিয়ার ৫টি দেশ ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সঙ্গে নেপাল অংশ নেবে ২০২৩ এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টে।

গ্রুপ এ: পাকিস্তান , ভারত ও নেপাল।
গ্রুপ বি: শ্রীলঙ্কা , বাংলাদেশ  ও আফগানিস্তান।

প্রাথমিকভাবে সুপার ফোরের সূচি ঘোষণা করা হয়েছে পাকিস্তান ও ভারতকে যথাক্রমে এ-১ ও এ-২ দল হিসেবে বাছাই করা হয়েছে। শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশকে বি-১ ও বি-২ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যদি নেপাল সুপার ফোরে ওঠে, তবে ভারত অথবা পাকিস্তানের মধ্যে যে দল ছিটকে যাবে, তাদের জায়গা নেবে নেপাল। অর্থাৎ, পাকিস্তান ছিটকে গেলে সুপার ফোরে নেপাল হবে এ-১ দল। ভারত ছিটকে গেলে সুপার ফোরে নেপাল হবে এ-২ দল।একই নিয়ম প্রযোজ্য বি-গ্রুপের ক্ষেত্রেও।